May 18, 2024, 12:20 am
শিরোনাম :
আসছে পলাশ-মিতু’র বিয়াই বিয়াইন সাইফুল বারীর কথায় গাইলেন কামরুজ্জামান রাব্বী ডেপুটি স্পিকারের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নেতাদের সাক্ষাৎ রায়পুরায় হত্যা মামলার আসামীর বিরুদ্ধে বাদীপক্ষের বসতঘরে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের অভিযোগ আমি আপনাদের সেবা করতে এসেছি শাসন করতে নয়; মত বিনিময় সভায় লায়লা কানিজ কোন তরুণ-তরুণী আর কর্মহীন ও বেকার থাকবে না : পলক শেরপুরে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উপলক্ষে বিজ্ঞান মেলার শুভ উদ্বোধন বেলাবতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রার্থীদের ইশতেহার ঘোষনা আমার দরজা আপনাদের জন্য সবসময় খোলা থাকবে; শেরপুর নবাগত এসপি আকরামুল আবারও বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান

পরপারে ভাষা সৈনিক মিরান উদ্দিন মাস্টার

ভাষা সৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মিরান উদ্দিন মাষ্টার(ফােইল ফটো)

ডেস্ক রির্পোট

পরপারে চলে গেলেন  ভাষা সৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মিরান উদ্দিন মাষ্টার (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।  আজ সোমবার সকালে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় নিজ বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। বার্ধক্যজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান মরহুমের পরিবার। তিনি এক কন্যা ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

বাদ জোহর নামাজে জানাজা শেষে ঘিওর মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থানে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে।

এদিকে তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য এ এম নাঈমুর রহমান দুর্জয়, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দীন, মানিকগঞ্জ জজকোর্টের পিপি এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, সিপিবি কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম আরজু, ঘিওর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার, ঘিওর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আব্দুল আজিজ, কমিউনিস্ট পার্টির মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কমরেড মজিবর রহমান মাস্টার, ঘিওর থানা অফিসার-ইন-চার্জ আশরাফুল আলমসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ।

ভাষা সৈনিক মিরান উদ্দিন মাস্টার জেলার দৌলতপুর উপজেলার ধামশ্বর ইউনিয়নের কাকনা গ্রামে ১৯৩৪ সালে ২৮ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন। তার শিক্ষক ভাষা আন্দোলনের পুরোধা প্রমথ নাথ নন্দীর নেতৃত্বে তেরশ্রীতে ভাষা আন্দোলনের সূত্রপাত ঘটে। নবম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় এই আন্দোলনের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হন মিরান আলী।

শিক্ষাজীবন শেষে তিনি তেরশ্রী কে. এন ইন্সটিটিউশনে শিক্ষকতা করেছেন। পরবর্তীতে তিনি স্কুল, কলেজসহ বহু প্রতিষ্ঠান গড়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে ন্যাপ-কমিউনিস্ট- ছাত্র ইউনিয়ন বিশেষ গেরিলা বাহিনীর একজন সম্মুখ যোদ্ধা ও সংগঠক।

তিনি শিক্ষা ও রাজনৈতিক জীবনে সান্নিধ্য পেয়েছেন কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী, জীতেন ঘোষ, মণি সিংহ, অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ, প্রমথ নাথ নন্দী, ডা. এম এন নন্দীসহ অনেক জাতীয় নেতৃবৃন্দের।

 

জোনাকি টেলিভিশন/এসএইচআর/০৮-০৬-২০ইং


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা