1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : খুলনা বিভাগ : খুলনা বিভাগ
  3. [email protected] : News : Badol Badol
  4. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  5. [email protected] : mahin : mahin khan
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:১২ পূর্বাহ্ন

৩৮তম ‘বিসিএস’ এ উর্ত্তীণ  নরসিংদীর মেয়ে শিমুলের স্বপ্ন জয়

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০
  • ২০৯ বার পঠিত
শিমুল আক্তার

মোঃ ফরহাদ আলম

সংকল্প, দৃঢ় প্রচেষ্টা ও মহান সৃষ্টিকর্তার অনুগ্রহ! যে মানুষের মাঝে এই তিনটি জিনিস বিদ্যমান, কোন বাধায় তাকে পরাস্ত করতে পারেনা। সাফল্য তাকে হাতছানি দিবেই।

পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী লেখিকা জেন স্মাইলি বলেছিলেন “আমার অভিজ্ঞতা বলে শ্রেষ্ঠ মোটিভেশন হলো সত্যিকার ইচ্ছা। সত্যিকার ইচ্ছা থাকলে কোন বাধাই মানুষকে থামাতে পারেনা”।

শিমুল আক্তার! স্ব-ইচ্ছাকে লালন করে বিজয়ী হওয়া একটি নাম। নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার হাসনাবাদ (নয়াহাটি) গ্রামের জয়নাল আবেদিন ও আম্বিয়া দম্পতির জ্যৈষ্ঠ কন্যা তিনি। ৫ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। গ্রামের বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করে ভর্তি হন হাসনাবাদ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে। বাবা-মা সহ ৭ সদস্যদের পরিবারের সকল কাজ-কর্মের মাঝেও বিদ্যালয়ে ধরে রেখেছেন নিজের কৃতিত্ব। মধ্যবিত্ত পরিবার! নানান প্রতিকূলতার মাঝেও এক মূহুর্তের জন্য স্বীয় অধ্যয়ন ও লক্ষ্য থেকে পিছপা হয়নি। ২০০৯ সালে এসএসসি পরিক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন শিমুল । এরপর নরসিংদীর আব্দুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি পরিক্ষায়ও কৃতিত্বের ধারা অব্যাহত রাখেন।

নারী জাগরণের দূত বেগম রোকেয়ার মতো মাত্র ১৮ বছর অর্থাৎ এইচএসসি পরিক্ষার পরেই পারিবারিক ভাবে মাহবুবুর রহমান নামে এক কলেজ শিক্ষকের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন শিমুল । বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) অনার্সে ভর্তি হন । অনার্স প্রথম বর্ষেই সন্তানের মা হন তিনি। জীবন সংগ্রামের গতি যেন দিন দিন বেড়েই চলছে, কিন্তু নিজের লক্ষ্য থেকে নড়তে নারাজ তিনি। “সমস্যা তোমাকে থামিয়ে দেয়ার জন্য আসেনা। সে আসে, যাতে তুমি নতুন পথ খুঁজে পাও” রবার্ব এইচ. স্কুলারের সেই মহান উক্তি যেন তার সংগ্রামের অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে। একদিকে পরিবার অন্যদিকে সুদূর ময়মনসিংহে নিজ বিদ্যাপীঠ, শোনতেই যেন বুক ঝলসে উঠে। কিন্তু স্বামী মাহবুবুর রহমানের দৃঢ় সহযোগীতা ও অনুপ্রেরণায় তিনি বাকৃবি থেকে প্রথম বিভাগ পেয়ে অনার্স সম্পন্ন করেন। পাশাপাশি জীবনের চূড়ান্ত লক্ষ্য বিসিএস এর জন্য সমান তালে চালিয়ে যান প্রস্তুতি। ২০১৯ সালে উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব বিভাগ থেকে প্রথম শ্রেণীতে মাস্টার্স শেষ করেন।

শিমুলের চাকরী জীবনের সূচনা হয় বাংলাদেশ ব্যাংকের অফিসার হিসেবে। তাতেও কি তিনি থেমে যান? না! অংশ নিলেন স্বপ্নের ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষায় এবং প্রথম পছন্দ বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে (সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট) সুপারিশপ্রাপ্ত হন। এভাবেই নিজের প্রচেষ্টাকে কাজে লাগিয়ে সফলতাকে তিনি নিয়ে আসেন নিজ হাতের মুঠোয়।

জোনাকী টেলিভিশন/এসএইচআর/১১ জুলাই ২০২০ইং

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..