1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : খুলনা বিভাগ : খুলনা বিভাগ
  3. [email protected] : Monir monir : Monir monir
  4. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  5. [email protected] : mahin : mahin khan
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন

নরসিংদীর শিবপুরে হাড়িধোয়া থেকে বালু উত্তোলন; ভাঙ্গছে ফসলি জমিসহ ঘর-বাড়ী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৩০ জুন, ২০২১
  • ৮৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

নরসিংদীর শিবপুরে অবৈধভাবে ডেজার বসিয়ে হাড়িধোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলনের ফলে এলাকার ফলসি জমিসহ বাড়ী-ঘর ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে। এতে বাধা প্রদান করলে এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যূ, মাদকব্যবসায়ী হত্যাসহ অস্ত্র মামলার আসামী তারেক ভূঁইয়া নিরীহ গ্রামবাসীকে হামলা-মামলাসহ প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে  । এব্যাপারে ইউএনও’র শরণাপন্ন হলেও কোন প্রতিকার পায়নি ওল্টো চাঁদাবাজীর মামলার শিকার হন কয়েকজন নিরীহ গ্রামবাসী।

জানা যায়, উপজেলার সৈয়দেরখোলা গ্রামের শাহজাহান ভূইয়ার ছেলে এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যূ, মাদকব্যবসায়ী হত্যাসহ অস্ত্র মামলার আসামী তারেক ভূঁইয়া নিজের প্রভাব এবং সাবেক সেনা কর্মকর্তা মাজেদুর রহমানের নাম ভাঙ্গিয়ে গত আড়াই মাস যাবৎ ডেজার বসিয়ে হাড়িধোয়া নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। দীর্ঘদিন ধরে ক্রমাগত বালু উত্তোলনের ফলে এলাকার ফসলি জমিসহ ঘর-বাড়ী নদী ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে। ইতোমধ্যে বেশ কিছু ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বালু উত্তোলনের ফলে ভাঙ্গন দেখা দিলে এলাকার লোকজন ডেজার চালানোর জন্য বাধা প্রদান করলে বালু উত্তোলনকারী তারেক ভূঁইয়া মামলায় জড়ানোসহ প্রাণেনাশের হুমকি প্রদান করে। উপায়ান্তর না দেখে নিরীহ এলাকাবাসী শিবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)  কাবিরুল ইসলামের শরনাপন্ন হয়। ইউএনও কাবিরুল ইসলাম এলাকাবাসীকে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া আশ্বাস প্রদান করেন। আশ্বাসবাণী শুনে এলাকাবাসী ফিরে আসলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি ওল্টো বালু উত্তোলনকারী তারেক নিরীহ ৬ জন এলাকাবাসীর নাম উল্লেখ করে একটি চাঁদাবাজীর মামলা দেয়। মামলার শিকার হয়ে নিরীহ এলাকাবাসী আতঙ্ক অবস্থায় দিন যাপন করছে।

বজলু মিয়া নামে একজন এলাকাবাসী জানায়, ডেজার দিয়ে বালু তোলার ফলে তার সবজির ক্ষেত নদীতে ভেঙ্গে যায়। ভাঙ্গন শুরু হলে ডেজার চালাতে বাধা দিলে তারেক বিভিন্ন প্রকার হুমকি দমকি দেয়। পরে তার নামসহ ৬ জনের নামে থানায় একটি চাঁদাবাজী মামলা দেয় সে।

মোজাম্মেল হোসেন নামে অপর এক এলাকাবাসী জানান, বালু উত্তোলন বন্ধ না করায় এলাকাবাসী মিলে ইউএনও কাছে বিষয়টি জানালে তারেক তার বাহিনী নিয়ে গ্রামবাসীর উপর নির্যাতন চালায় এবং বিভিন্ন প্রকার হুমকি দমকি প্রদান করে।

চাঁদাবাজী মামলার শিকার খবিরের স্ত্রী বলেন, তারেক শুধু নদী থেকে বালুই উত্তোলন করেনি। নদীপাড়ে বিভিন্ন মানুষের সবজির ক্ষেত কেটে সাবার করে দেয়। প্রতিবাদ করায় ওল্টো থানায় চাঁদাবাজী মামলা দেয়।

এব্যাপারে অভিযুক্ত তারেকের সাথে যোগাযোগ করলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তিনি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়ে তার মোবাইল সেটটি বন্ধ করে দেয়।

পরে সেনাবাহিনীর ওয়ারেন্ট অফিসার মাজেদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, কেউ কোথাও অবৈধ ভাবে বালু করছেনা। সৈয়দেরখোলায়ও সেনাবাহিনীর অনুমতিতে ডেজার চালানো হয়েছিল তবে তা এখন বন্ধ রয়েছে।

শিবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কাবিরুল ইসলাম বলেন, নদী থেকে বালু উত্তোলনের বেশ কয়েকটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। ইতোমধ্যে সেগুলোর ব্যবস্থাও নেওয়া  হয়েছে। আর তারেকের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে এবং তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..