1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : খুলনা বিভাগ : খুলনা বিভাগ
  3. [email protected] : News : Badol Badol
  4. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  5. [email protected] : mahin : mahin khan
বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩, ১০:৪৭ অপরাহ্ন

নওগাঁ- নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়কের কাজ শেষ পর্যায়ে; ৩ জেলাবাসীর যোগাযোগ ব‍্যবস্থায় উন্নয়ন

একেএম কামাল উদ্দিন টগর
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২৪৮ বার পঠিত

নওগাঁ প্রতিনিধি

উত্তরাঞ্চলের মৎস্য ও শষ্য ভান্ডার খ্যাত নওগাঁর আত্রাইয়ের সাহাগোলা-আহসানগঞ্জ রেলওয়ে ষ্টেশানের পশ্চিম পাশ দিয়ে নির্মাণাধীন আঞ্চলিক মহাসড়কের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এ আঞ্চলিক মহাসড়কটির নির্মাণ কাজ শেষ হলে উত্তোরাঞ্চলের তিন জেলার ছয়টি উপজেলার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন সার্ধিত হবে। পাশাপাশি তরাম্বিত হবে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ব্যবস্থার। কৃষিপণ্য সরবরাহ সহজ হওয়াসহ নওগাঁ থেকে ঢাকার সাথে সড়ক যোগাযোগ প্রায় ষাট কিঃমিঃ কমে যাবে।

সড়কটি নওগাঁর ঢাকা মোড় থেকে শুরু করে রাণীনগর-আত্রাই (আহসানগঞ্জ) রেল লাইনের পাশ দিয়ে রাণী ভবানীর স্মৃতি বিজড়িত শহর নাটোর শহরে পৌঁছবে। প্রায় ২৯ কিঃমিঃ পাকা করণ কাজের কিছু অংশ বাঁকি থাকলেও ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্থানে নব-নির্মিত এই আঞ্চলিক মহা সড়কে যানবাহন চলাচল শুরু করেছে। আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন না হলেও এই জনপদের মানুষরা প্রতিনিয়ত সরাসরি নানা যানবাহনে নওগাঁর ঢাকা মোড় থেকে শুরু করে রাণী নগর-আত্রাই, বীরকৎসা, মাধনগর,নলডাঙ্গা,বাসুদেবপুর হয়ে স্বল্প সময়ে নিজেদের প্রয়োজনে কম খরচে জেলা শহর নাটোরে যাতায়াত করছেন।

মহাসড়ক এলাকার স্থানীয়রা বলছেন, নব-নিমিত“ আঞ্চলিক মহাসড়ক” ইতোমধ‍্যে বিনোদন প্রেমীদের জন্য বিনোদনের একটি নতুন স্পটে পরিনত হয়েছে। নব-নির্মিত আঞ্চলিক মহা সড়কের কিছু কিছু জায়গায় কাপেটিংয়ের কাজ এখনও শেষ না হওয়ায় সড়কের ধুলো-বালির কারণে দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন এই সড়কের পথচলা মানষেরা।তারপরও এই সড়কে চলাচল করতে পারায় স্বস্থি প্রকাশ করছেন অনেকেই।

নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ২০২১-২০২২ অর্থ বছরেই বাঁকি কাজ গুলো সম্পন্ন করে জন সাধারণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে এই সড়কটি।

জানা যায়, ২০০১ সালে জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই সড়কটি নির্মাণ কাজের জন্য সেই সময়ে নওগাঁ-৬ আসনের সাংসদ,  গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আলমগীর কবির নওগাঁর ঢাকা রোড নামক স্থানে এ মহাসড়কের নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। সেই মোতাবেক কিছু কাজ শুরু হলেও রাজনৈতিক নানা জটিলতার কারণে তা ফাইল বন্দী হয়ে পড়ে। এরপর ঢাকা রোড় থেকে রাণীনগর রেলওয়ে ষ্টেশন পর্যন্ত আট কিঃমিঃ সড়কের কাজ অনেক আগেই পাকাকরণ করা হয়। পরে সেই সকল জটিলতা কাটিয়ে নওগাঁ-৬ আসনের প্রয়াত এমপি ইসরাফিল আলম ২০১৮ সালে পূনঃরায় রাণীনগর রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে আত্রাই হয়ে নাটোর জেলার সীমানা পর্যন্ত আঞ্চলিক সড়কের নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। এরপর থেকে এই সড়কের নির্মান কাজে আসে গতি, দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলায় এখন তা এলাকাবাসীর কাছে দৃশ্যমান। সড়কটি নাটোর বাইপাস সড়কের সাথে যুক্ত হয়েছে। পুরো সড়কতে ৮টি ব্রীজ ও ১৫টি কালভার্ট নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যেই প্রায় শেষ হয়েছে। বর্তমানে সড়কের উপরিভাগের কাজও শেষের দিকে। কিছু কিছু জায়গায় শুধু মাত্র কাপেটিং এর কাজ বাঁকি আছে। এই মহা-সড়কের নির্মান ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় দু,শ কোটি টাকা। মহাসড়কের পুরো প্রকল্পটিকে চারটি পেইজে ভাগ করে চারটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজ করছেন।

নওগাঁ- নাটোর আঞ্চলিক সড়কটির নির্মাণ কাজের দেখভাল করছেন নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

আত্রাই উপজেলার মহাদিঘী গ্রামের বাসিন্দা হামিদুল হক বাবু, আবু হান্নান মন্ডল, সাহাগোলা গ্রামের বিলকিছ বেগম, ভূট্টো,আবু জহিদ ডালিমসহ অনেকে জানান,  দ্রুত গতিতে  মহাসড়কের নির্মাণ কাজ করায় বর্তমানে তা প্রায় শেষ পর্যায়ে। ইতোমধ্যে আমরা কম খরচে অল্প সময়ে আত্রাই-মাধনগর হয়ে বিভিন্ন যানবাহনে করে নাটোর যেতে পারছি। কিছু কিছু নির্মাণ কাজ বাঁকি থাকায় চলাচলে সাময়িক অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে। এই কাজগুলো সম্পন্ন করা হলে আমরা  ভালো ভাবে দ্রুত চলাচল করতে পারবো।

নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান জানান, ২০২১-২২ অর্থ বছরের মধ্যে পুরো প্রকল্পের কাজ শেষ করার লক্ষে বর্তমানে কাজ চলমান রয়েছে। সরকারের দেওয়া নির্দেশনা মোতাবেক প্রকল্পের আর সময় বাড়ানো হবে না। কাজের সিডিউল মোতাবেক সঠিক ভাবে কাজ সম্পন্ন করার জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান গুলেকে কঠোর ভাবে হুশিয়ারী প্রদান করা হয়েছে।সড়কটি নির্মাণ কাজ শেষ হলে এই জনপদের মানুষের ব্যবসা বানিজ্যসহ অথনৈতিক জীবণ যাত্রার মান উন্নয়ন হবে।

নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর)আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন হেলাল জানান, নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক সড়কের নির্মাণ কাজ অনেক আগে থেকেই চলছে।ইতোমধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে। এই সড়কটি পুরোদমে চালু হলে এ অঞ্চলের মানুষের যোগাযোগ ব‍্যবস্থায় সুফল বয়ে নিয়ে আসবে। এলাকাবাসী পাবে একটি চলাচলের আধুনিক সড়ক। যার মাধ্যমে রাণীনগর-আত্রাইয়ের লোকজন অল্প খরচে কম সময়ে নাটোর হয়ে রাজধানী ঢাকায় যেতে পারবে।পাশাপাশি ব্যবসা-বানিজ্যসহ নানাবিধ উন্নয়নের প্রসার ঘটবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..