1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : Monir monir : Monir monir
  3. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  4. [email protected] : mahin : mahin khan
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৪:২৮ অপরাহ্ন

কেয়ার বাংলাদেশের “নিরাপদ মাতৃত্ব ও মেনস্ট্রুয়াল হাইজিন ডে ২০২২” উপলক্ষে সচেতনতামূলক কর্মশালা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩ জুন, ২০২২
  • ১১৭ বার পঠিত

বি এম আশিক হাসান, গাজীপুর মহানগর :

কেয়ার বাংলাদেশের উদ্যোগে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫২ নং ওয়ার্ড মুদাফা হাজী সৈয়দ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের কনফারেন্স হলে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে ৫০ জন কিশোরী শিক্ষার্থীর অংশগ্রহনে সচেতনতামূলক মেনস্ট্রুয়াল কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

মুদাফা হাজী সৈয়দ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জিন্নত আলীর সভাপতিত্বে এবং মুদাফা সহকারী শিক্ষক মোঃ সাইফুল ইসলামের সঞ্চালনায় সচেতনতামূলক কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ৫২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং মুদাফা হাজী সৈয়দ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ আব্দুল আলিম মোল্লা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টেকনিক্যাল কো-অর্ডিনেটর মনিষা মাফরুহা, বাটাসু কোম্পানির শ্রমিক নেতা মোঃ আবু ওবায়দা বাবুল, সার্বিক সমন্বয়কারী ছিলেন কেয়ার বাংলাদেশের প্রোগ্রাম অফিসার মোঃ আলাউদ্দিন হোসেন।
আরও উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকা বৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল আলিম মোল্লা বলেন, আমরা যখন শিক্ষার্থী ছিলাম তখন নারী শিক্ষার্থীরা নিরাপদ মাতৃত্ব ও মেনস্ট্রুয়াল হাইজিন কর্মশালা থেকে বঞ্চিত ছিল। বর্তমানে কেয়ার বাংলাদেশের নিরাপদ মাতৃত্ব ও মেনস্ট্রুয়াল হাইজিন কর্মশালা নারী শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই কর্মশালার উদ্যোগ নেওয়ায় কেয়ার বাংলাদেশে এবং তাদের প্রতিনিধিবৃন্দর প্রতি প্রশংসা করেন এবং সাধুবাদ জ্ঞাপন করেন তিনি আরও বলেন এই কর্মশালার মাধ্যমে কিশোরী শিক্ষার্থীরা সচেতন হতে পারবে এবং শারীরিক মানসিক ভাবে সুস্থ থাকবে।

কেয়ার বাংলাদেশে টেকনিক্যাল কো-অর্ডিনেটর মনিষা মাফরুহা কিশোরী শিক্ষার্থীদের মেনুস্ট্রুয়াল বিভিন্ন বিষয় অবগত করেন এবং শিক্ষার্থীদের সাথে মতবিনিময় শেষে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেছেন।

পরিশেষে কেয়ার বাংলাদেশের সৌজন্যে শিক্ষার্থীদের কুইজ প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয় এবং বিজয়ীদের হাতে কেয়ার বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

এসময় ৫০ জন কিশোরী শিক্ষার্থীর মাঝে স্যানিটারী ন্যাপকিন বিতরণ করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..