1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : Monir monir : Monir monir
  3. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  4. [email protected] : mahin : mahin khan
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০৮ অপরাহ্ন

নরসিংদীতে ব্রয়লার মুরগির দাম ডাবল সেঞ্চুরিতে

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৩ মে, ২০২০
  • ৮৪ বার পঠিত
ব্রয়লার মুরগি(ফাইল ফটো)

নিজস্ব প্রতিবেদক

কয়েকদিনের ব্যবধানে নরসিংদীতে ব্রয়লার মুরগির দাম বেড়ে আকাশচুম্বী হয়েছে। লকডাউনের সময় গত একসপ্তাহ আগে ১০০-১১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া ব্রয়লার মুরগির দাম এখন ১৯০ টাকা ছাড়িয়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, ফার্মের মুরগির দাম ঈদের আগে অর্থাৎ আগামীকাল রবিবার ২০০ টাকা হতে পারে। শনিবার (২৩ মে) নরসিংদীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

নরসিংদীর বিভিন্ন খুচরা বাজারে এক সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে কেজি ১৯০ টাকা ছুঁয়েছে। খুচরার পাশাপাশি ফার্মেও ব্রয়লার মুরগির দাম বেড়েছে। কয়েক দফা দাম বেড়ে এখন ফার্মে দ্বিগুণের বেশি দামে পোল্ট্রি মুরগি বিক্রি হচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, দেশ করোনা মহামারি শুরুর প্রথম দিকে ব্রয়লার মুরগির চাহিদা ব্যাপক হারে কমে যায়। ফলে দামও কমে। করোনা পরিস্থিতির  আগে ১৩০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া ব্রয়লার মুরগি করোনার শুরুতে ১০০ টাকায় নেমে আসে। তবে রোজার শুরুতে কিছুটা দাম বাড়ে। এতে ১০৫ থেকে ১১০ টাকা কেজি বিক্রি হতে থাকে ব্রয়লার মুরগি। বেশ কিছুদিন এই দাম স্থির থাকার পর চলতি মাসের ১০ তারিখে এক লাফে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে ৩০ টাকা বেড়ে ১৪০ টাকা বিক্রি হয়। এরপর ১২ মে কিছুটা দাম কমে ১৩০ টাকায় নামে। তবে ১৫ মে আবার দাম বেড়ে কেজি ১৭০ টাকায় পৌঁছে যায়। এখন তা আরো বেড়ে ১৯০ টাকা ছুঁয়েছে।

খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, পাইকারিতে ব্রয়লার মুরগির দাম যে হারে বাড়ছে তাতে আগামীকাল (ঈদের আগেরদিন) হয়তো কেজি ২০০ টাকা হয়ে যাবে। কারণ এখন গরু ও খাসির মাংসের অনেক দাম। স্বল্প আয়ের মানুষের পক্ষে গরু ও খাসির মাংস কিনে খাওয়া সম্ভব না। ফলে ঈদের দুই-তিনদিন আগে ব্রয়লার মুরগির চাহিদা বেড়ে যায়।

উৎপাদকরা বলছেন, করোনা ভাইরাসের শুরুতে ব্রয়লার মুরগির চাহিদা ব্যাপক হারে কমে যায়। এতে ফার্ম মালিকরা লোকসানে কম দামে মুরগি বিক্রি করেন। যে কারণে তারা নতুন বাচ্চা উৎপাদনে যাননি। আগের যে বাচ্চা ছিল এখন সেই বাচ্চা বড় করে বিক্রি করা হচ্ছে। ফলে ব্রয়লার মুরগির সরবরাহ কমেছে। এছাড়া লকডাউন কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। এতে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া অনেকে ঢাকায় ফিরে এসেছেন। সেই সঙ্গে মানুষের বাইরে বের হওয়ার হার বেড়েছে এবংবাজারে কেনাকাটার পরিমাণ বেড়েছ। এতে ব্রয়লার মুরগির চাহিদাও বেড়েছে। মূলত এ কারণেই এখন ব্রয়লার মুরগি দাম বেড়েছে।

ভেলানগর বাজারের  মুরগি ব্যবসায়ী শফিক  বলেন, ‘এখন প্রায় প্রতিদিনই ব্রয়লার মুরগির দাম বাড়ছে। কিছুদিন আগে ১১০ টাকা কেজি বিক্রি করা পোল্ট্রি মুরগি এখন ১৮০/১৯০ টাকা হয়েছে। যে হারে দাম বাড়ছে তাতে আগামীকাল হয়তো ২০০ টাকা কেজি হয়ে যাবে। ঈদের দিন সবাই মাংস-ভাত খেতে চায়। ফলে ঈদের আগে মাংসের চাহিদা বেশ বেড়ে যায়। কিন্তু এখন গরুর মাংসের কেজি ৬০০ টাকা এবং খাসির মাংসের কেজি ৯০০ টাকার নিচে পাওয়া যাচ্ছে না। নিম্ন আয়ের মানুষের পক্ষে এই দুর্দিনে এত দাম দিয়ে মাংস খাওয়া সম্ভব না। সুতরাং তারা ব্রয়লার মুরগিই কিনবেন। ফলে সামনে ব্রয়লার চাহিদা আর বেড়ে যাবে এবং দামও বাড়বে।

নরসিংদী পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ এসোসিয়েশনের নেতারা বলছেন, করোনার কারণে ব্রয়লার মুরগির দাম ব্যাপক হারে কমে যায়। ফার্ম থেকে লোকসানে মুরগি বিক্রি করতে হয়েছে। ফার্মে ব্রয়লার মুরগির কেজি ৬০ টাকাতেও বিক্রি করতে হয়েছে। এখন ফার্মে ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকা। আর বাচ্চা বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা পিস, যা এক সময় ১০ টাকা নেমেছিল। করোনার কারণে অনেক ফার্ম বন্ধ হয়ে গেছে। লোকসানের কারণে ফার্ম মালিকরা নতুন করে বাচ্চা তুলতে পারেননি। যার কারণে দাম বেড়েছে।

 

জোনাকি টেলিভিশন/২৩-০৫-২০ইং

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..