1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  3. [email protected] : mahin : mahin khan
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৭:২৮ অপরাহ্ন

নরসিংদীর পলাশে ঘুড়ি উড়ানোকে কেন্দ্র করে ১২টি বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২১ জুন, ২০২০
  • ২৪ বার পঠিত
সস্ত্রাসী হামলায় গাফ্ফার মিয়ার বাড়ীর চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদক

নরসিংদীর পলাশের ঘুড়ি উড়ানোকে কেন্দ্র করে বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ১২ ঘরসহ ১টি দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করেছে সন্ত্রাসীরা । এসময় নগদ অর্থসহ ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায় তারা। শুক্রবার রাতে উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়নে দক্ষিণ গালিমপুর গ্রামে এ সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা ইমনের নেতৃত্বে প্রায় ২ শ সন্ত্রাসী এ ঘটনা ঘটায়। এঘটনায় হামিদা আক্তার নামে স্বামী পরিত্যাগত্বা এক নারীসহ আহত হয়েছেন ৭জন। এমনটাই অভিযোগ করেছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের লোকজন। হামলা ও ভাংচুরের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় ডাঙ্গা পুলিশ ফাঁড়িতে ক্ষতিগ্রস্তরা অভিযোগ করলেও এখনো পর্যন্ত পলাশ থানায় কোন মামলা হয়নি।

স্থানীয়রা জানান, গত বুধবার বিকেলে গালিমপুর উত্তরপাড়ার একটি ক্ষেতে কয়েকজন অল্পবয়সী ছেলে ঘুড়ি উড়াতে যায়। এসময় গুড়ি ছিড়ে ফেলা নিয়ে ওই ছেলেদের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এই ঘটনার জের ধরে গতকাল রাতে গালিমপুর উত্তরপাড়ার আলেক মিয়ার ছেলে ও স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা ইমনের নেতৃত্বে প্রায় ২শত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হামলা অংশ নেয়।  এসময় গালিমপুর দক্ষিণপাড়ার  সাইফুল ইসলাম সরকার, হাবিবুর রহমান, ইমন মিয়া, হামিদা আক্তার, গাফ্ফার মিয়া, নূরুনাহার ও আবুল বাশার মিয়ারসহ মোট ১২টি বাড়ী-ঘর ও ১টি দোকানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। প্রতিটি ঘর থেকে নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয় সন্ত্রাসী দলটি। এতে করে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। সন্ত্রাসী হামিদা আক্তার নামে স্বামী পরিত্যাগত্বা এক নারী কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। এছাড়াও সন্ত্রাসী হামলায় আরও ৬ জন আহত হয় । ঘটনার পর থেকে আতঙ্কে আছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকজন। তারা এঘটনায় সঠিক বিচার দাবী করেছেন।

এদিকে  ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক  সাইফুল ইসলাম সরকারের বাড়ী-ঘরও হামলা কারীদের দ্বারা ভাংচুর ও লুটপাট হওয়ায় তার পক্ষের লোকজন স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বলে প্রতিষ্ঠা করতে চাইলেও অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্তরা তা ঘুড়ি উড়ানোর বিবাধ বলে শিকার করেন।

এঘটনায় সাইফুল ইসলামের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলেননি।

ডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাবের-উল হাই বলেন, হামলার ঘটনার কথা সত্য। আমি এঘটনার নিন্দা জানাই  সেই সাথে দৃঢভাবে বলছি এই হামলার সাথে যারাই জড়িত থাকুক তাদের উপযুক্ত বিচার হবে। হোক তারা ছাত্রলীগের হোক অন্য যেকোন সংগঠনের হোক। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে যতটুকু সহযোগিতা করতে হয় আমি এবং আমার পরিষদের পক্ষ থেকে করা হবে।

 

জোনাকী টেলিভিশন/এসএইচআর/২১-০৬-২০ইং

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৯৫৩,১৩৮
সুস্থ
১,৯০০,৩৫৪
মৃত্যু
২৯,১২৭
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট