1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  3. [email protected] : mahin : mahin khan
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন

নরসিংদীতে বিএনপি’র জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ৫২ বার পঠিত

নরসিংদী প্রতিনিধি:

নরসিংদীতে ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বর উপলক্ষে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করেছে জেলা বিএনপি। দিবসটি উপলক্ষে শনিবার বিকেলে চিনিশপুরস্থ নরসিংদী জেলা বিএনপি’র কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব ও জেলা বিএনপি’র সভাপতি খায়রুল কবির খোকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিভিন্ন স্থান থেকে নেতাকর্মীরা খন্ড খন্ড মিছিল সহকারে এসে সভাস্থলকে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখর করে তোলে।

১৯৭৫ সালের এ দিনে ক্যান্টনমেন্টের সিপাহী-জনতা গৃহ বন্দি থেকে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে মুক্ত করে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব ন্যাস্ত করেন তার হাতে ।

জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাষ্টার’র পরিচালনায় আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি ও সাবেক এমপি রোকেয়া আহম্মেদ লাকী, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক হারুণ অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক দীন মোহাম্মদ দীপু, শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ফারুখ উদ্দিন ভূঁইয়া, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি, জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি শাহেন শাহ শানু, দপ্তর সম্পাদক আমিনুল হক বাচ্চু প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, আজকের এই দিনে স্বজাতির স্বাধীনতা রক্ষায় অকুতোভয় দেশ প্রেমিক সৈনিক ও জনতার ঢলে ঢাকার রাজপথ এক অন্যন্য বিস্ফোরণ ঘটে। ক্যান্টনমেন্ট থেকে জিয়াউর রহমানকে মুক্ত করা হয়। পাল্টে যায় দেশের পটভূমি এবং এ পরিবর্তনে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব প্রভাব মুক্ত হয়ে শক্তিশালী এক জাতীসত্বা লাভ করে বাংলাদেশ। গণতন্ত্র মুক্ত হয়ে অগ্রগতির পথে দেশ এগিয়ে যায়। এ ছাড়া এই দিন থেকে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ বহুদলীয় গণতন্ত্রের পথে যাত্রা শুরু করে। প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান শাহাদত বরণ করলেও তার আদর্শে বলীয়ান মানুষ দেশের স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র রক্ষায় এখনো দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ রয়েছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেগম খালেদা জিয়ার জয়প্রিয়তাকে ভয় পায়। তাই জাতীয় বিপ্লব ও সংগতি দিবসটিকে বাংলার ইতিহাস থেকে মুছে দিতে চ্য়া। দেশে আজ আইনের শাসন নেই বললেই চলে। দেশে মানুষের বাক স্বাধীনতা হরন করেছে বর্তমান সরকার।গণতন্ত্র ও দেশের মানুষের বাক স্বাধীনতা ফিরিয়ে দিতে আমদেরকে আবারও ঐক্যবদ্ধ হতে। সিপাহী বিপ্লবের মত আরও একটি বিপ্লব ঘটাতে হবে। যাতে এ অগণতান্ত্রিক সরকারে পতন ঘটানো সম্ভব হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৯৫৩,১৩৮
সুস্থ
১,৯০০,৩৫৪
মৃত্যু
২৯,১২৭
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট