1. [email protected] : admi2019 :
  2. [email protected] : খুলনা বিভাগ : খুলনা বিভাগ
  3. [email protected] : Monir monir : Monir monir
  4. [email protected] : Mostafa Khan : Mostafa Khan
  5. [email protected] : mahin : mahin khan
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৬ পূর্বাহ্ন

নরসিংদীর আলোকবালী ইউনিয়ন সমাজ কল্যাণ সংঘের আনন্দ ভ্রমণ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৬৪ বার পঠিত

আবুল কাশেম,নরসিংদী

ইউনেস্কো কর্তৃক ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্যের এক অপার নিদর্শন পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে আনন্দ ভ্রমণ সম্পন্ন করেছে নরসিংদীর আলোকবালী ইউনিয়ন সমাজ কল্যাণ সংঘের কার্যকরী কমিটির সদস্যরা। সোমবার (৫ এপ্রিল) পাঁচ দিনের ভ্রমণ শেষে বাড়ী ফিরেছে কমিটির সদস্যরা।

সুন্দরবনের অপরূপ সৌন্দর্যের বর্ণনা করতে গিয়ে তাইতো কবি বলেছিলেন, `সুন্দরবন তুমি জড়িয়ে আছো বঙ্গদেশের অঙ্গে, একসাথে করছো বাস বাঘ হরিণের সঙ্গে, বঙ্গদেশের বুকজুড়ে সুন্দরবনের হাসি,সুন্দরবনের জন্য ধন্য দেশবাসী।‘

গত ১ থেকে ৫ এপ্রিল এই পাঁচ দিনে আনন্দ ভ্রমণে কমিটির সদস্যরা সুন্দরবনের বিভিন্ন পয়েন্ট যেমন: সোনাখালি, গোসাবা, পাখিরালয়, সজনেখালি, সুধন্যখালি, দুবা কি ক্যাম্প ,ঝড়খালি, এছাড়াও ষাট গম্বুজ মসজিদ, খানজাহান আলীর মাজার, বঙ্গবন্ধুর সমাধি স্থল, যমুনা সেতুসহ বহু স্পট ঘুরে বেড়িয়েছেন।

আনন্দ ভ্রমনের অংশ নেন, আলোকবালী ইউনিয়ন সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি স্পেন প্রবাসী তামিম আবু বক্কর, সিনিয়র সহ-সভাপতি আরিফ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াতুল হক, সহ সভাপতি সাংবাদিক আবুল কাশেম, কাউসার আলম, নুরুল ইসলাম, শাকিব উল হক, আব্দুর রহিম, নূর মোহাম্মদ, শফিকসহ কার্যকরী কমিটির অন্যান্য সদস্যরা।

এসময় সংগঠনের সভাপতি তামিম আবু বক্কর তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করে বলেন, ‘ভ্রমণ করলে মন ফ্রেশ থাকে, আমি স্পেন থেকে দেশে আসলে প্রতিবছর এই সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি আনন্দ ভ্রমনের আয়োজন করে থাকি, আমি একজন ভ্রমণপিয়াসু লোক, যখনই অবসর পাই ,তখনই কোথাও না কোথাও ভ্রমণে যাই। আপনারা সকলে দোয়া করবেন আমি যেন আমার সাধ্যমত আজীবন সকল অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে এ সংগঠনের মাধ্যমে দাঁড়াতে পারি।’

উল্লেখ্য জনকল্যাণমূলক কাজ মানুষিকতা নিয়ে প্রায় বছর আগে নরসিংদীর সদর উপজেলার আলোকবালিতে এক দল যুবক প্রতিষ্ঠা করে আলোকবালী ইউনিয়ন সমাজ কল্যাণ যুব সংঘ। সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক সেবামূলক এই সংগঠনটি এলাকার অসহায় মানুষের সেবা করে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠার পর গত তিন বছরে বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসা, এতিমখানাসহ বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজে প্রায় সংগঠনটির পক্ষ থেকে এক কোটি টাকার উপরে অনুদান প্রদান করা হয়েছে। সংগঠনটি সেবামূলক কর্মকান্ডে অল্পদিনের মধ্যেই সংগঠনটি ইউনিয়নে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। শুধু সেবামূলক কাজই নন এলাকার উঠতি বয়সের ছেলে-মেয়ে ও যুবক শ্রেণির জন্য সংগঠনটির পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময়ে খেলাধূলা ও আনন্দ ভ্রমনের আয়োজন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..